প্রাথমিক শিক্ষক ও প্রাক্তন সেনা কর্মী অনন্ত মাইতি কে বিজেপি করার অপরাধে রড,বাটাম নিয়ে এলোপাথাড়ি মার তৃণমলী গুন্ডাদের।

প্রাথমিক শিক্ষক ও প্রাক্তন সেনা কর্মী অনন্ত মাইতি কে বিজেপি করার অপরাধে রড,বাটাম নিয়ে এলোপাথাড়ি মার তৃণমলী গুন্ডাদের।

কাঁথি সাংগঠনিক জেলার পটাশপুর থানার নৈপুর 2 নম্বর অঞ্চলের আলামচক বেলদা গ্রামে তৃণমূলের দুষ্কৃতীদের হাতে আক্রান্ত হলেন বিজেপি নেতৃত্ব প্রাক্তন সেনা এবং বর্তমানের প্রাথমিক স্কুল শিক্ষক অনন্ত মাইতি,পুলিশের সামনে তৃণমূলের দুষ্কৃতীরা অত্যাচার চালায় এবং প্রাণে মারার চেষ্টা করে। উনাকে এগরা সুপার-স্পেসালিটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে ।

জানা গিয়েছে ,রবিবার সকালে ওই বিজেপি কর্মী নিজের বাড়ি থেকে ওই এলাকার অদূরে নিজের ভাইয়ের বাড়িতে যাচ্ছিলেন।ঠিক সেই সময় ওই বিজেপিকে একা পেয়ে ফাঁকা রাস্তার উপরে মারধর করে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা বলে অভিযোগ বিজেপির।তবে এই ঘটনার পর রক্তাক্ত জখম ওই বিজেপি কর্মীকে উদ্ধার করে এগরা সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।বর্তমানে হাসপাতালে তার চিকিৎসা চলছে।

কাঁথি সাংগঠনিক জেলার যুব মোর্চার সভাপতি অরুপ দাশ বলেন:- নৈপুর ২নং অঞ্চলের আলামচক বেলদা এলাকায় অনন্ত মাইতি নামের ওই ব্যক্তি আমাদের দলের একজন সক্রিয় বিজেপি কর্মী।তিনি আজ সকালে নিজের বাড়ি থেকে ওই এলাকার অদূরে নিজের ভাইয়ের বাড়িতে যাচ্ছিলেন।ঠিক সেই সময় ওই বিজেপিকে একা পেয়ে ফাঁকা রাস্তার উপরে মারধর করে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা।তিনি আরও বলেন,মূলত বিজেপি করার অপরাধে অনন্ত বাবুরকে বেধড়ক মারধর করা হয়েছে।তবে ওই এলাকার আমাদের বিজেপি কর্মীরা তাকে উদ্ধার করে এগরা সুপার হাসপাতাল ভর্তি করে।তবে এবিষয়ে আমরা ধিক্কার জানাই।পাশাপাশি পুলিশ প্রশাসন বিজেপিকে আটকে রেখে তৃণমূলের দালালি করছেন।আপনারা দালালি থেকে বেরিয়ে আসুন না হলে ২০২১ সালে আমরা ক্ষমতায় এলে মানুষের জনরোষের শিকার আপনাদের হতে হবে।